18 C
Kolkata
Monday, January 25, 2021
Home খবর করোনা সঙ্কটে কাউন্সিলর হলেন রাঁধুনি, নিজে হাতে রেঁধে বেড়ে খাবার তুলে দিলেন...

করোনা সঙ্কটে কাউন্সিলর হলেন রাঁধুনি, নিজে হাতে রেঁধে বেড়ে খাবার তুলে দিলেন ওয়ার্ডের অভুক্তদের মুখে

এখনই বিশ্বের কাছে সবচেয়ে বড় চিন্তা হল করনা ।দিনে দিনে করনা আক্রন্ত বাড়ছে। বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যা।করোনার ভাইরাসের কাছে উন্নত মানব সভ্যতা খুব অসহায়।কেবল করোনা কী শুধুই ভাঙছে, গড়ছে না কিছুই! বিশ্ব অর্থনৈতিক ব্যবস্থা যদিও হতাশা ও ক্ষতির কারণ, তবে এটি আশাবাদী। ফলস্বরূপ অনেক ব্যক্তিরা করোনায় জন্য নিজে থেকে সামাজিক প্রশাসন দেখছেন। পুর আইনের ‘ওয়ার্ড’ সংজ্ঞা’র আমূল রূপান্তরিত এনে দিয়েছে এই করোনা। সুতরাং এতদিন ওয়ার্ড মানে ছিলো কাউন্সিলর,  চেয়ারম্যান ইন কাউন্সিল বা মেয়র ইন কাউন্সিল এর নির্দিষ্ট গণ্ডির আদি প্রশাসন। রাজনৈতিক দলের পরিচয় নিয়ে জিতে আসায় জন প্রতিনিধির সব কাজে সাধারন মানুষের খোঁজাটাও যেন দস্তুর!

যত দিন গড়াচ্ছে কাউন্সিলর যাচ্ছে পাড়ায় পাড়ায় । কাউন্সিলর হয়ে উঠছেন কখনও অন্নদাতা, আবার কখনও রাঁধুনি। দমদম পুরসভা’র ৩নং ওয়ার্ডের ঘটেছে এই রকম ঘটনা। কাউন্সিলর পর্ণা দাস দিব্যি করোনার অজুহাতে ঠান্ডা ঘরে বসে সময়টা কাটিয়ে দিতে পারতেন। তা না করে তিনি যা করলেন, নিজের জায়গার ওপর বানিয়ে ফেললেন ৬টি উনুন। এলাকার মেয়েদের জড়ো করে বসে গেলেন সবজি কাটতে। খুন্তি নাড়ার দায়িত্বও কাঁধে তুলে নিলেন নিজেই। গ্যাসের রান্নায় খরচ বেশি তাই কাঠের জ্বালানি’র ব্যবহার করল। ছেলেদের দিয়ে বাজার করানোর কাজ করাল। ১২০ জনের মুখে খাবার তুলে দিতে শুরু হয়। নতুন বাংলা বছরের প্রথম রবিবারে সংখ্যাটা ১০০০ ছাড়িয়েছে।


রবিবার মেনুটি ছিল ভাত এবং মোরগের মাংসের ঝোল। ঘরে ঘরে বাড়ি পাঠানো দায়িত্ব ছেলেদের। বিমানবন্দর  লাগোয়া স্থানের কারণে অনেকগুলি ভাড়াটিয়া । তাদের অর্থ রয়েছে কিন্তু রান্নার কোনও অভ্যাস নেই।তাই পর্ণা দাস নিজে খুন্তি তুলে নিলেন । রোজ দরিদ্র, দুঃস্থ সবার জন্যই উনুন চড়ছে । প্রতিদিন সন্ধে’র মধ্যেই পরের দিনের মেনু প্রস্তুত হয়ে যাচ্ছে। সকাল হলে মেয়েরা বসে যাচ্ছেন সবজি কাটতে। এভাবে কতদিন টানবেন এই পরিষেবা?  “যতদিন পারবো সবজি কাটতে কাটতে পর্ণা দাসে’র উত্তর,। তবে মানুষের মুখে খাবার তুলে দিয়ে সত্যি আনন্দ হচ্ছে।রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে নানা সামাজিক কর্মযজ্ঞে ব্যস্ত এখন জন প্রতিনিধিরা। ডান, বাম, গেরুয়া সব দলের প্রতিনিধিদেরই সেখানে পাশে থাকার বার্তা দিয়েছেন। করোনা, সভ্যতা ভাঙছে যেমন গড়েও দিচ্ছে অনেককিছুই।

Most Popular

TODAY'S TOP NEWS