35 C
Kolkata
Saturday, February 27, 2021
Home খবর অসমে গ্রেফতার জয়েন্ট এন্ট্রান্সে প্রথম স্থানাধিকারী ছাত্র তার বাবা,অন্যকে দিয়ে পরীক্ষা দেওয়ানোর...

অসমে গ্রেফতার জয়েন্ট এন্ট্রান্সে প্রথম স্থানাধিকারী ছাত্র তার বাবা,অন্যকে দিয়ে পরীক্ষা দেওয়ানোর অভিযোগে

বিশ্ব সংবাদ ডিজিটাল ডেস্ক: অসমে জয়েন্ট এন্ট্রান্স পরীক্ষার ৯৯.৮ শতাংশ নম্বর পেয়ে প্রথম স্থান দখল করেছিল। কিন্তু গোটাটাই আসলে ছিল অসৎ উপায়ে পাওয়া নম্বর। তাঁর বাবার পরীক্ষার লেখার জন্য প্রক্সি ব্যবহার করেন।তাই পুলিশ প্রথম স্থানাধিকারী নীল নক্ষত্র দাস এবং তার বাবাকে গ্রেপ্তার করেছে। পরীক্ষাকেন্দ্রের তিন আধিকারিককেও গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।গুয়াহাটির পুলিশ সুপার এম পি গুপ্ত এনডিটিভি-কে জানিয়েছেন, অসমে JEE MAINS-এ প্রথম স্থান পাওয়া ছাত্রটি পরীক্ষায় লিখেনি, বরং তার পরিবর্তে অন্য কেউ লিখে দিয়েছে তার বিনিময়ে তার বাবা তাকে অর্থ প্রদান করেছিল।

তদন্ত অনুসারে, পরীক্ষার্থী এজেন্সির সহায়তায় প্রক্সি পরীক্ষকের সহায়তায় প্রথম স্থান অর্জন করেছিল। গুয়াহাটি পুলিশ প্রধান জানিয়েছেন যে গুয়াহাটি পরীক্ষা কেন্দ্রের কিছু কর্মকর্তা ও কর্মচারীও এতে জড়িত ছিলেন। পুলিশের অনুমান, কেবল একজন পরীক্ষার্থী নয়, আরও অনেক পরীক্ষার্থী এই অসৎ উপায়ে পরীক্ষায় পাশ করেছে। এর পেছনে বড় কোন চক্র রয়েছে । এর সঙ্গে কে বা কারা যুক্ত তা খুঁজে পেতে পুলিশ তদন্ত করছে। ধৃতদের বৃহস্পতিবার আদালতে হাজির করা হবে।

গত সপ্তাহে, একটি ফোনে কথোপকথন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছিল যার মধ্যে,অসমে জয়েন্ট এন্ট্রান্স প্রথম স্থান অর্জনকারী নীল নক্ষত্র দাশ স্বীকার করেছিলেন যে তিনি অন্যের সহায়তায় পরীক্ষায় সফল হয়েছেন। মিত্রদেব শর্মা নামে এক ব্যক্তির এই ফোন কলের ভিত্তিতে একটি এফআইআর দায়ের করেন।

অভিযোগ, ইনভিজিলেটরের তদন্তকারীর দায়িত্বে থাকা ব্যক্তিও এই চক্রের সাথে জড়িত ছিলেন।অভিযুক্ত ছাত্র পরীক্ষার দিন খাতায় কেবল তার নাম এবং রোল নম্বর লিখে আসছিল। পরে সেই খাতা বের হয়ে যেত এবং অন্য কেউ উত্তর লিখে দিতেন। অসম পুলিশের তরফে ন্যাশনাল টেস্টিং এজেন্সি-কেও বিষয়টি জানানো হয়েছে৷

Most Popular

TODAY'S TOP NEWS